চলতি মাসে বাণিজ্য সমস্যা সমাধানে বৈঠকে বসবে চিন ও আমেরিকা

179

চলতি মাসে বাণিজ্য সমস্যা সমাধানে বৈঠকে বসবে চিন ও আমেরিকা। তার আগে বিশ্ব অর্থনীতি নিয়ে আশঙ্কা বাড়িয়ে রবিবার থেকে একে অপরের পণ্যে নতুন করে শুল্ক বসাল দুই দেশ। এই প্রথম মার্কিন অশোধিত তেলে কর চাপাল বেজিং। চিন থেকে মার্কিন মুলুকে আসা জুতো, পোশাক, খেলার সামগ্রী-সহ সাধারণের ব্যবহারের নানা পণ্যে শুল্ক বসাল ওয়াশিংটনও।

চিনের সরকারি সংবাদমাধ্যম আজ আমেরিকাকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, ট্রাম্প প্রশাসনের উচিত দায়িত্ববান হওয়া এবং স্কুলের ‘দুর্বল ছাত্রকে ভয় দেখিয়ে জবরদস্তি করার’ মতো কাজ থেকে বিরত থাকা। বলা হয়েছে, সকলের সঙ্গে মিলে বিশ্বের উন্নতিতে কাজ করলে, তবেই আমেরিকা ফের সত্যিই ‘বড়’ (গ্রেট) হয়ে উঠবে। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে ‘মেক আমেরিকা গ্রেট এগেন’ স্লোগানেই প্রচারে ঝড় তুলেছিলেন ট্রাম্প।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এ বার যে সমস্ত চিনা পণ্যে ট্রাম্প প্রশাসন শুল্ক চাপিয়েছে, তার বেশির ভাগটাই আমেরিকার সাধারণ মানুষ ব্যবহার করেন। ফলে বড়দিনের আগে এই শুল্কের জের কেনাকাটায় পড়তে পারে। যা হলে চাপ বাড়বে অর্থনীতির।

LEAVE A REPLY

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে