নদী বাঁচলে বাঁচবে শহর, মানবজাতি, পরিবেশ, এবার জলঙ্গী বাঁচানোর ডাক

47

মাছেরা আজ বদ্ধ, নৌকার দেখা মেলা ভার,প্লাষ্টিক, ফুল, দেবতার কাঠামো নদীর ভারসাম্য নষ্ট করে দিচ্ছে।শহরের নোংরাজল, বাড়ির ফুলের প্যাকেট, নদীতে বসবাসকারি জীবজগতের কাছে আজ অসহনীয়। এই নদীকে বাঁচাতে হবে, নদী বাঁচলে শহর বাঁচবে,বাঁচবে মানবজাতি, বাঁচবে পরিবেশ। এই প্রতিবাদে ও মানুষের কাছে এক দৃষ্টান্তস্থাপন করলো সেভ জলঙ্গী। সেভ জলঙ্গী অনেকদিন ধরেই নদীকে নিয়ে লড়াই এই জাগ্রত সমাজের কাছে। সচেতন মানুষের এই লড়াই এ আজ হাজির অনেক পরিবেশ কর্মীরা ও তাদের প্রতিনিধিরা। উপস্থিত ছিলেন যে সকল সংস্থা- সেভ জলঙ্গী নদী সমাজ, আমরা কৃষ্ণনগর বাসী,লায়ন্স ক্লাব সম্পর্ক,সুজন বাসর, কৃষ্ণনগর চারুকলা সোসাইটি,পরিবেশ বন্ধু,মায়াপুর ইসকন,নদিয়া যুগবার্তা,শান্তিপুর সায়েন্স ক্লাব,নদীয়া পরিবেশ মঞ্চ।

‘সেভ জলঙ্গী’র উদ্যোগে নদীকে বাঁচাতে, প্লাস্টিক বর্জন করতে, সমাজ কর্মীদের ওপর আক্রমনের প্রতিবাদে হলো মানববন্ধন। এই অনুষ্ঠানে কৃষ্ণনগর ও কৃষ্ণনগরের বাইরের অনেক পরিবেশ সংগঠন অংশ নেন। প্লাষ্টিক মুক্ত কৃষ্ণনগর শহর গড়তে আসুন আমরা সকল শুভবুদ্ধিসম্পন্ন মানুষ এই মানব বন্ধনে অংশগ্রহন করি।ব্যাক্তিগত স্বার্থে নয়, শহরের স্বার্থে আসুন, শহর ভালোবেসে আসুন। এই শহরটা আমাদেরও।প্রতিবাদে সামিল ছিলো ৮ থেকে ৮০ বছর বয়সের প্রত্যেক স্তরের মানুষ। জলঙ্গী বাঁচাতে ও প্লাষ্টিক বর্জন করতে শহরের সকল মানুষ হাতে হাত ধরে মানববন্ধনে অংশ নেয়। চলে পথ নৃত্য, পরিবেশ কর্মীদের বক্তব্য পাঠ। মানববন্ধনে শহরের মানুষের অংশগ্রহন চোখে পড়ার মতো।

LEAVE A REPLY

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে