নিল জ্যোতির কর্ণধার দেবব্রত পাল, শিশু সন্তানদের হাতে তুলে দিলেন ১00 দুধের প্যাকেট

79

তৃতীয় দফায় ১৭ ই মে পর্যন্ত লকডাউনের সময়সীমা বাড়িয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার । এমতো পরিস্থিতিতে দিন আনে দিন খাওয়া মানুষেরা সঞ্চয়ের ভান্ডার শেষ হয়ে শুরু হয়েছে খাদ্যের সংকট। অসহায় হয়ে পড়েছে বহু মানুষ। ইটভাটায় কর্মরত শ্রমিকদের সংখ্যাও কম নয়। লকডাউনে কাজ বন্ধ। কোনো মতে দুবেলা দু মুঠো খেয়ে পেট চলছে তাঁদের। তার উপর পরিবার ও শিশু সন্তান। করোনার সংক্রমণ থেকে বাচঁতে প্রয়োজন ইমিউনিটি শক্তি বাড়ানোর। খাদ্যসংকট পরিস্থিতিতে ইমিউনিটি শক্তি বাড়ানোর ও শিশু সন্তানদের পুষ্টি জনিত খাদ্য সরবরাহ করা দুস্কর হয়ে পড়েছে ইটভাটা শ্রমিকদের। আজ মঙ্গলবার নিলজ্যোতি গ্যাসের কর্ণধার দেবব্রত পাল এই অসহায় হতদরিদ্র মানুষের সাহায্যার্থে বারাসাত-ব্যারাকপুরে রোড সংলগ্ন ইটভাটা শ্রমিকদের শিশুসন্তানদের পুষ্টির জন্য দুধের প্যাকেট বিতরণ করেন। প্রায় ১০০ ইটভাটা শ্রমিকদের শিশুসন্তানদের হাতে দুধের প্যাকেট তুলে দেয় নিলজ্যোতি গ্যাসের সদ্যসরা।

নীল জ্যোতি গ্যাসের কর্ণধার দেবব্রত পাল জানান, লকডাউন পরিস্থিতিতে বন্ধ ইটভাটা। কাজ নেয় শ্রমিকদের। এরা সকলেই পরিযায়ী শ্রমিক। এই অবস্থায় তাঁদের শিশুসন্তানদের জন্য আজ ১০০ বাচ্চার হাতে দুধের প্যাকেট তুলে দেওয়া হয় এবং আগামী সাত দিন এই কর্মসূচি লাগাতার চলবে বলে জানান।

LEAVE A REPLY

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে