ভুটভুটির ধাক্কায় আহত মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী

47

নিজস্ব সংবাদদাতা,মালদা ২৪ ফেব্রুয়ারি: পরীক্ষা দিতে আসার পথে ভুটভুটির ধাক্কায় গুরুতর জখম হলো এক মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। তার নাম মহাবুতুন নেশা। বয়স 16। সে সাদলি চক উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী। তার পরীক্ষার কেন্দ্র পড়েছিল পিপলা উচ্চ বিদ্যালয় এ।

ঘটনা প্রকাশ মহাবুতুন ও তার বাবা নওশাদ মোটর সাইকেলে চেপে পিপলা উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা দেওয়ার উদ্দেশ্যে আসছিল। বারদুয়ারী পার করে সামনে থেকে আসা ট্রাক্টর কে পাস দিতে গিয়ে অন্য দিক থেকে আসা একটি ভুটভুটি ওই মোটরসাইকেল ধাক্কা মারে। গুরুতরভাবে জখম হন ওই মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী ও তার বাবা। দুর্ঘটনায় আহত পরীক্ষার্থীর বাবা নওশাদ জানান তিনি মোটর বাইকে করে তার মেয়েকে নিয়ে হরিশ্চন্দ্রপুর এর পিপলা উচ্চ বিদ্যালয় আসছিলেন পরীক্ষার উদ্দেশ্যে। বারদুয়ারী মোড় পার করে একটি ট্রাক্টর কে সাইড করে দিতে গিয়ে অন্য দিক থেকে আসা একটি ভুটভুটি তার মোটরবাইকে ধাক্কা মারে। দুজনেই বাইক থেকে ছিটকে পড়েন। তার মাথায় চোট লেগেছে। তার মেয়ের একটি হাত ভেঙে গিয়েছে। আজ অংক পরীক্ষা ছিল। তার মেয়ে ওই ভাঙ্গা হাত নিয়ে পরীক্ষা দিয়েছে। এরপর তাকে হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে বাবা মেয়ের চিকিৎসা চলছে। আগামী পরীক্ষাগুলো সুস্থ হবে দিতে পারবে কিনা এই নিয়ে চিন্তিত নওশাদ বাবু। তার মেয়ে ছোট থেকেই পড়াশোনায় খুব ভালো পরীক্ষার প্রস্তুতি ও ভালো ছিল। দুর্ঘটনার জেরেবাকি পরীক্ষাগুলো হবে তা বুঝতে পারছেন না তিনি।

এ প্রসঙ্গে উত্তর মালদা মাধ্যমিক পরীক্ষা ২০২০ এর কনভেনার মহবুল হক জানান আমরা পরীক্ষার্থীর উপযুক্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছি। সে বর্তমানে হরিশ্চন্দ্রপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। হাসপাতালের চিকিৎসকরা পরীক্ষা করে সিদ্ধান্ত নেবেন পরীক্ষার হলে গিয়ে পরীক্ষা দিতে পারবে কিনা। তা না হলে আগামী পরীক্ষাগুলো সে হাসপাতালে বসেই দেবে সেই ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে