স্বাস্থ্যসাথী কার্ড রোগী গেলে হাসপাতাল থেকে ফেরানো যাবে না, লাইসেন্স বাতিলের হুঁশিয়ারি মমতার

174

দুর্গাপুর: যে বেসরকারি হাসপাতাল স্বাস্থ্যসাথী কার্ড-হোল্ডারদের পরিষেবা না দিয়ে ফিরিয়ে দেবে তাদের লাইসেন্স বাতিল হবে হুঁশিয়ারি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে সরকারের তালিকায় রাজ্যের বেশ কিছু বেসরকারি হাসপাতালের নাম রয়েছে৷ বৃহস্পতিবার সরকারি আধিকারিক, আমলা, জনপ্রতিনিধিদের উদ্দেশে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড নিয়ে যদি কোনও গরিব মানুষ তালিকায় থাকা হাসপাতালে যান, আর তারা যদি ফিরিয়ে দেয় তাহলে থানায় অভিযোগ জানান।”

এদিন দুর্গাপুরের সৃজনী প্রেক্ষাগৃহে পশ্চিম বর্ধমান জেলার প্রশাসনিক বৈঠকে ছিলেন মমতা। সেই বৈঠকে পুলিশকে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ, এইরকম অভিযোগ এলেই জেলাশাসককে জানাতে হবে। কোনও দেরি করা যাবে না। জেলাশাসক জানাবেন মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে। হাসপাতালগুলির উদ্দেশে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “যদি কেউ পরিষেবা না দেন, তাহলে তাদের লাইসেন্স নিয়ে সমস্যা হবে। মনে রাখবেন আপনারা কিন্তু রাজ্যের থেকে লাইসেন্স নিয়ে হাসপাতাল চালান।”

উল্লেখ্য, এরাজ্যে কেন্দ্রের আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প চালু করেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রথম থেকেই তাঁর দাবি ছিল, আয়ুষ্মান ভারত-এর থেকে তাঁদের স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প অনেক ভাল।

LEAVE A REPLY

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে