লকডাউন পরিস্থিতিতে জনজীবন সচল রাখতে একগুচ্ছ গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ মুখ্যমন্ত্রীর

23

কলকাতাঃ করোনা ভাইরাসের সঙ্গে যুদ্ধ চালাচ্ছে পশ্চিমবঙ্গও। প্রাণঘাতী ভাইরাসকে রুখতে মরিয়া মমতা সরকার। এই পরিস্থিতিতে সাহায্যের জন্য আগেই স্টেট ইমার্জেন্সি রিলিফ ফান্ড চালুর কথা ঘোষণা করেছিলেন মুখ্য়মন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। করোনা পরিস্থিতিতে আপনি যদি সাহায্য়ের হাত বাড়াতে চান, তাহলে কী করবেন‍? জানালেন মুখ্য়মন্ত্রী।

মুখ্যমন্ত্রী যে যে নির্দেশ দিয়েছেন তা হলো:-

১. গুজবে কান দেবেন না, গুজব ছড়াবেন না।

২. হোম ডেলিভারি বয়দের কোনওভাবেই আটকানো যাবে না । চাষি, আনাজ বিক্রেতা, আনাজের মোটবাহককে ছাড়। অন্যথায় সংশ্লিষ্ট পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা।

৩. সবজি বিক্রেতাদের বাধা দেওয়া যাবে না। সব্জি বহনকারী গাড়ি বা ভ্যানকে আটকানো যাবে না।

৪. কৃষকদের মাঠের কাজে বাধা নয়।

৫. অত্যাবশ্যকীয় পণ্য আটকালে সংশ্লিষ্ট অফিসারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

৬. কারোর জ্বর হলে সামাজিকভাবে বয়কট নয়।

৭. কেউ খাবার না পেলে বিডিও, আইসি- কে জানাতে হবে।

৮. ভবঘুরেদের জন্য নাইট শেল্টারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেখানে মিলবে খাবারও।

১০. খোলা থাকবে সমস্ত রেশন দোকান। প্রয়োজনে মানুষকে এক মাসে রেশন দিন।

১১. ২ মাসের সামাজিক পেনশন একসঙ্গে দেওয়া হবে।

১২. স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বিশেষ হেল্পলাইন খোলা হয়েছে।

১৩. রাজ্যের কন্ট্রোলরুম তিনটি শিফটে ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে। কন্ট্রোল রুম নাম্বার ১০৭০।

১৪. রাজ্যগুলির জন্য আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করুক কেন্দ্র।

নিয়ম মেনে ঠিক মতো কি চলছে কাজ? দেখতে এবার শহরের বাজারে বাজারে সারপ্রাইজ ভিজিট মুখ্যমন্ত্রীর ৷ সোস্যাল ডিসটেন্স বজায় রাখার জন্য নিজে হাতেই রাস্তায় কেটে দিলেন গন্ডি ৷

এদিকে গোটা পরিস্থিতির দিকে নজর রাখতে রাজ্যে দুটি টাস্ক ফোর্স গড়া হয়েছে। একটা, মুখ্যসচিবের নেতৃত্বে, আর একটা পুলিশের টাস্ক ফোর্স। রাজ্যে একটাই হেল্পলাইন নম্বর চালু করা হয়েছে। টোল ফ্রি নম্বর ১০৭০ ও ল্যান্ডলাইন নম্বর ০৩৩- ২২১৪৩৫২৬। করোনা আতঙ্কে মুখ্যমন্ত্রী বুধবার বলেন, ”কেউ মেডিকেয়ার দিতে চাইলে ৯০৫১০২২০০০ নম্বরে ফোন করুন। স্টেট ইমার্জেন্সি রিলিফ ফান্ডে কেউ সাহায্য করতে চাইলে, অ্যাকাউন্ট নম্বর হল ৬২৮০০৫৫০১৩৩৯, আইএফসি কোড- ICIC0006280, wb.gov.in এটা ওয়েবসাইট”।

পীযূষ মজুমদার

LEAVE A REPLY

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে